স্থগিত শ্রীলঙ্কার সফর

0
166

জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটলো। শেষ পর্যন্ত স্থগিত হয়ে গেল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের শ্রীলঙ্কা সফর। আজ (সোমবার) নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তিনি বলেন, ‘শ্রীলঙ্কা সরকারের কঠোর কোয়ারেন্টিন নীতিমালার কারণেই সফরে যাচ্ছে না বাংলাদেশ। করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলে নতুন সূচি জানানো হবে।’ যেহেতু বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল শ্রীলঙ্কা সফর করছে না, তাই এই মুহূর্তে সব ধরনের ঘরোয়া ক্রিকেট আয়োজন করতে আগ্রহী বিসিবি। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী নভেম্বরে শুরু হতে পারে ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগ।

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি) আগেই জানায়, সে দেশে পৌঁছে টাইগারদের থাকতে হবে কঠোর কোয়ারেন্টিনে। খেলোয়াড়রা হোটেলের রুম থেকে বের হতে পারবে না খাবারের জন্যও। এমন শর্তে কোনোভাবেই টেস্ট খেলতে রাজি ছিল না বাংলাদেশ। এমনকি ৭ দিনের বেশি কোয়ারেন্টিনও করতে চায়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

কিন্তু দেশকে করোনামুক্ত রাখতে লঙ্কান কোভিড-১৯ টাস্কফোর্স ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় তাদের অবস্থানে ছিল অনড় । তারা কোনোভাবেই কোয়ারেন্টিন শর্ত শিথিল করতে রাজি হয়নি।

এসবের পর সিরিজ বাঁচাতে কিছুটা নমনীয় হয় বিসিবি। বাংলাদেশ বোর্ড জানায়, কোয়ারেন্টিনে থাকতে আপত্তি নেই, তবে হোটেলে ক্রিকেটারদের বন্দি রাখা যাবে না। বাংলাদেশ সরকারের ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলও, লঙ্কা সফর নিয়ে বিসিবি’র অবস্থানের কথা জানান। রোববার ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘কোনোভাবেই এটা সম্ভব নয়, ১৪ দিন রুমের মধ্যে আটকে থাকা। একটা খেলোয়াড়ের ফিটনেস হলো বড় বিষয়। বন্দি থাকলে কখনোই একজন  খেলোয়াড়ের ফিটনেস ঠিক থাকবে না। বলেছি, হোটেলে আমরা থাকতে পারি, কোয়ারেন্টিনের সময়টা একটু কমিয়ে  দেয়া হোক। আর জিম থেকে শুরু করে সুইমিং ও অন্যান্য সুযোগ যেন আমাদের খেলোয়াড়দের দেয়া হয়।’

তবে বিসিবি’র এমন চাওয়া মেনে নেয়নি এসএলসি। শেষ পর্যন্ত তাই সফর বাতিল করতে হলো। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে ৩ ম্যাচের টেস্ট সিরিজটি মূলত অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল গত জুলাইয়ে। করোনাভাইরাসের প্রকোপে তখন স্থগিত করা হয় সিরিজটি।

Print Friendly, PDF & Email