ছেলের বিরুদ্ধে বাবাকে হত্যার অভিযোগ, আটক ৩

0
90

রাজশাহীর বাগমারায় ছেলের বিরুদ্ধে বাবাকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহত বাবার নাম মাহামুদ আলী (৬৫)। তিনি উপজেলার যোগীপাড়া ইউনিয়নের ভটখালি গ্রামের বাসিন্দা বলে জানা গেছে। ওই ঘটনায় পুলিশ নিহতের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৫০), ছেলে মোজাহার আলী (৩২) ও ছেলের বউ জান্নাতুন ফেরদৌসকে (২২) গ্রেফতার করেছে।

পুলিশের ধারণা শ্বাসরোধ করেই বৃদ্ধ মাহামুদ আলীকে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে সিআইডির ক্রাইম দলের সদস্যরা তদন্ত শুরু করেছে বলে জানিয়েছে বাগমারা থানার পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, নিহত মাহামুদ আলীর দুই ছেলে আজাহার আলী (৩৫) ও মোজাহার আলী একই বাড়িতে বসবাস করে আসছে। আজাহার আলী দেশের বাইরে থাকায় তার স্ত্রী খালেদা বেগমের সঙ্গে মোজাহার আলীর স্ত্রী জান্নাতুন ফেরদৌসের প্রায় দ্বন্দ্ব লেগে থাকতো। ওই দ্বন্দ্বের জেরে বাবা মাহামুদ আলী বাড়ি থেকে ছেলে মোজাহার আলী ও তার স্ত্রী আনোয়ারা বেগমকে পাশের জমিতে বাড়ি করে দেয়।

 

এছাড়াও আজাহার আলীর বিদেশ থেকে পাঠানো টাকা দিয়ে বাবা মাহামুদ আলী ছেলের বউ খালেদার নামে কিছু জমি রেজিস্ট্রি করে দেন। জমি দেওয়ার পর থেকেই বাবা মাহামুদ আলীর সঙ্গে তার স্ত্রী আনোয়ারা ও ছেলে মোজাহার আলীর মধ্যে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়। গত রবিবার রাতের খাবার শেষে মাহামুদ আলী তার বাড়িতে অবস্থান করার সময় বাড়ির প্রাচীর টপকে ভিতরে প্রবেশ করে এবং শ্বাসরোধের মাধ্যমে হত্যা করে পালিয়ে যায় হত্যাকারীরা।

সোমবার সকালে প্রতিবেশীরা বাড়ির দরজা খোলা না দেখে মাহামুদ আলীকে ডাকতে শুরু করে। প্রতিবেশীর ডাকে সাড়া না দেওয়ায় এলাকার লোকজন দরজা ভেঙে বাড়ির ভিতরে প্রবেশ করে বারান্দায় বৃদ্ধ মাহামুদ আলীর লাশ দেখতে পায়। এলাকার লোকজন বিষয়টি পুলিশকে জানালে বাগমারা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি উদ্ধার করে। লাশের পরিস্থিতি দেখে পুলিশের সন্দেহ হলে স্ত্রী, ছেলে ও ছেলে বউসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে।

বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ জানান, মাহামুদ আলী হত্যার ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিষয়টি সিআইডিও তদন্ত করছে।

Print Friendly, PDF & Email