চলে গেলেন মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার সি আর দত্ত

0
121

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ৪ নম্বর সেক্টরের কমান্ডার মেজর জেনারেল (অব:) চিত্তরঞ্জন দত্ত (সি আর দত্ত) বীর উত্তম আর নেই। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর ৮ মাস। ফ্লোরিডায় বয়েন্টনবিচ বেথেস্ডা সাউথ হাসপাতালের হসপিস কেয়ার ইউনিটে ছিলেন তিনি। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৪ আগস্ট সোমবার দিবাগত রাত সোয়া ১১টায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। চিকিৎসকদের উদ্ধৃতি দিয়ে তার কনিষ্ঠ জামাতা প্রদীপ দাসগুপ্ত এ সংবাদদাতাকে জানান।

উল্লেখ্য, কনিষ্ঠ কন্যা কবিতা দাসগুপ্ত হ্যাপির ফ্লোরিডায় বাসায় অবস্থান করছিলেন সি আর দত্ত। গত বৃহস্পতিবার ওই বাসার বাথরুমে পড়ে গিয়ে ডান পায়ের গোড়ালি ভেঙে যায় বলে তার জামাতা প্রদীপ দাস গুপ্ত বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান। সাথে সাথে তাকে নিকটস্থ বেথেস্ডা ওয়েস্ট হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হয়। এরপর চিকিৎসকরা তার গোড়ালিতে মাইক্রো সার্জারি করেন। সে সময় তাকে সম্পূর্ণভাবে অজ্ঞান (এনেসথেসিয়া) করতে হয়। তিনি এ্যাজমায় আক্রান্ত থাকায় এই সার্জারির পরই শ্বাস নিতে কষ্ট মারাত্মকভাবে বেড়ে যায়। একইসাথে তার কিডনিও অচল হয়ে পড়েছিল।

বয়সের ভারে ন্যুব্জ এই জেনারেলকে কৃত্রিম উপায়ে শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে জ্ঞান ফিরিয়ে আনা সম্ভব হলেও কথা বলেছেন অসংলগ্নভাবে। গুপ্ত জানান, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা তার অবস্থার সার্বক্ষণিক মনিটরিংয়ে রেখেছিলেন। তবে তার চিকিৎসার ব্যাপারে তারা হাল ছেড়ে দিয়েছিলেন সোমবার দুপুরেই।

 

সোমবার বিকেলে বাবার গুরুতর অসুস্থতার সংবাদ জেনে সি আর দত্তের জ্যেষ্ঠ কন্যা মহুয়া দত্ত এবং পুত্র ডা. রাজা দত্ত নিউইয়র্ক থেকে ফ্লোরিডায় চলে আসেন। পারিবারিক সূত্রে এ সংবাদদাতাকে বলা হয়েছে, জেনারেল দত্তকে ঢাকায় নিয়ে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তার শেষকৃত্যানুষ্ঠান হবে। তার অপর কন্যা কানাডা থেকে সরাসরি ঢাকায় যাচ্ছেন পিতার মরদেহ গ্রহণের জন্যে।

উল্লেখ্য, বেশ কয়েকবছর ধরেই তিনি নিউইয়র্কে পুত্র-কন্যাদের সাথে নিউইয়র্কে অবস্থান করছিলেন। গত শীতের প্রকোপ শুরু হবার আগেই ফ্লোরিডায় গেছেন সি আর দত্ত। এমনি অবস্থায় গত মার্চে করোনা মহামারি আকার ধারণ করায় নিউইয়র্কে না ফিরে সেখানেই অবস্থান করছিলেন।

ফ্লোরিডায় যাওয়ার আগে গত বিজয় দিবসে নিউইয়র্কে তার পুত্র ডা. রাজা দত্তের বাসায় অনাড়ম্বর এক অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের ব্যানারে প্রবাসের মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে একাত্তরের স্মৃতিচারণ করেন এই সেক্টর কমান্ডার। সে সময় তিনি সকলকে বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানিয়েছিলেন। এরপর আর কোনো অনুষ্ঠানে দেখা যায়নি তাকে।

জেনারেল সি আর দত্তের পরলোকগমনের সংবাদে গভীর শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা রাশেদ আহমেদ ও সেক্রেটারি মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল বারি, আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা লাবলু আনসার ও সেক্রেটারি শহীদুল ইসলাম এবং বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের যুক্তরাষ্ট্র শাখার অন্যতম সভাপতি অধ্যাপক নব্যেন্দু বিকাশ দত্ত।

Print Friendly, PDF & Email