অভিনেতা এম শামসুজ্জামান অসুস্থ, অবস্থা ভাল না

0
118

শুক্রবার থেকে আবারো অসুস্থ হয়ে পড়েছেন চলচ্চিত্রের শক্তিশালী অভিনেতা ও চিত্রনাট্যকার এ টি এম শামসুজ্জামান। শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে তার। শরীরে নানা রকমের সমস্যা দেখা দিয়েছে। কথা বলছেন না। স্বাভাবিক খাবার খেতে পারছেন না। তাঁকে শনিবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়েছে। এ টি এম শামসুজ্জামানের স্ত্রী রুনা জামান এ তথ্য জানিয়েছেন। রুনা জামান জানান, শুক্রবার রাতভর শারীরিক অবস্থা খারাপ হতে থাকে এ টি এম শামসুজ্জামানের।

পরে গতকাল দুপুরে তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নেওয়া হয়। সেখানকার মেডিসিন বিভাগের চিকিৎসক অধ্যাপক আতিকুর রহমানের পরামর্শে এ টি এম শামসুজ্জামানকে নিউরোমেডিসিন বিভাগের অধীনে ভর্তি করা হয়। অধ্যাপক আতিকুর রহমান এ টি এম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থার বিষয়ে জানান, আগে দুবার উনি আমার অধীনে ভর্তি ছিলেন। এবার ধারণা করা হচ্ছে, তিনি  স্ট্রোক করেছেন। শরীরের এক পাশ অবশ। একটি চোখের এক পাশে ভাইরাল অ্যাটাক হয়েছে। শারীরিক অবস্থা বেশি দুর্বল। সবকিছু বিবেচনায় আমরা ওনাকে নিউরোমেডিসিন বিভাগের অধীনে ভর্তির পরামর্শ দিয়েছি। বর্তমানে তিনি নিউরোমেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের অধীনে ভর্তি আছেন। এ টি এম শামসুজ্জামানের মেয়ে কোয়েল আহমেদ বলেন, বাবার মূল সমস্যার চিকিৎসা এখনো শুরুই হয়নি। বেলা দুইটার পর এখানকার বড় ডাক্তাররা চলে যান। আশা করছি, আজ বাবার চিকিৎসার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন বড় ডাক্তাররা। উল্লেখ্য, এ বছরের ২৬ শে এপ্রিল রাতে বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়েন এ টি এম শামসুজ্জামান। সেদিনও খুব শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল। সেই রাতে তাঁকে রাজধানীর গেন্ডারিয়ার আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অস্ত্রোপচার করা হয়। এরপর কিছু শারীরিক জটিলতা হয়। টানা ৫০ দিন এই হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে ১৫ই জুন তাকে শাহবাগের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নেওয়া হয়। কিছুদিন সেখানে ছিলেন। অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাকে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার একটি বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। এর আগে গত ২৫ শে নভেম্বর আন্ত্রিক প্রতিবন্ধকতা দেখা গেলে এ টি এম শামসুজ্জামানকে জরুরি অবস্থায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়েছিল। অবস্থা একটু ভালো হলে পরে তাঁকে বাসায়  নেওয়া হয়। গত ৮ই ডিসেম্বর তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে ২০১৭ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের ‘আজীবন সম্মাননা’ পুরস্কার গ্রহণ করেন।

 

Print Friendly, PDF & Email